“হঠাও দূর্নীতি বাঁচাও দেশ,শেখ হাসিনার বাংলাদেশ”

দেশযোগ ডেস্ক:

ক্যাসিনো,সন্ত্রাস ও দূর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে চলমান অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার পক্ষে এই প্রথম চট্রগ্রাম মহানগর ছাএলীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম ছামদানী জনি’র নেতৃত্বে হালিশহর থানা ছাত্রলীগের এক বিশাল মিছিল এবং মিছিল পরবর্তী সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়,
সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন – হালিশহর থানা যুবলীগ নেতা নুর উদ্দিন মিল্টন, ইকবাল হোসেন মামুন,সাইফুল ইসলাম রবিন,
মিল্লাত,
হালিশহর থানা ছাত্রলীগ নেতা রিগান,একে আরিফ,মাহফুজুর রহমান ফাহিম, এ আর অপু, ইমরাম খান আরভি, সাকিব, শামিম, ঈসমাইল প্রমুখ।

সমাবেশে গোলাম সামদানী বলেন—

আইনের শাসন ও গুড গভর্ন্যান্স তথা সুশাসন প্রতিষ্ঠার দৃঢ়প্রত্যয় এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ব্যক্ত করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,
তিনি বার বার দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর সতর্কবাক্য উচ্চারণ করেছেন। তিনি আট মাস পর্যবেক্ষণ করেছেন এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ও অন্যান্য সূত্র থেকে সামগ্রিক তথ্য সংগ্রহ করেছেন। ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কতিপয় নেতা দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েছেন এবং তা সীমা অতিক্রম করে যাচ্ছে। এ তথ্য জানার পর প্রধানমন্ত্রী এদের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নির্দেশ দেন। তারই পরিপেক্ষিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযান চলছে।
প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতি ও দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান নিজ দল থেকেই শুরু করেছেন। তিনি মনেপ্রাণে চান তার নেতা-কর্মীরা দুর্নীতি ও লোভ-লালসার ঊর্ধ্বে থেকে জনগণের জন্য কাজ করুক। তিনি সব সময় নিজেকে জনগণের সেবক বলেন এবং তার নেতা-কর্মীদের সেভাবেই নির্দেশ দেন। তার ব্যত্যয় ঘটায় তিনি অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেন।
গোলাম সামদানী আরো বলেন
একজন রাষ্ট্রনায়কের গভীর দেশপ্রেম, নিজের শতভাগ স্বচ্ছতা, নৈতিক সাহস ও জনগণের প্রতি দায়বদ্ধতা না থাকলে এভাবে নিজের দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে আইনি অভিযান চালাতে পারেন না।আমাদের নেএী
দেশরত্ন শেখ হাসিনার মধ্যে সেই গুণাবলি আছে বিধায়ই এ ধরনের পদক্ষেপ নিতে পেরেছেন যা দেশবাসী এবং আমরা কৃতজ্ঞতার সাথে স্বাগত জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *